ওয়ার্ডপ্রেস লুপে সঠিকভাবে পোস্টের তারিখ দেখানো

আমরা প্রায় সবাই আমাদের ওয়ার্ডপ্রেস থিমে পোস্ট গুলো দেখানোর জন্য নিচের মত করে লুপ লিখি। লুপটা দেখলে আপনি অবাক হবেন যে এতে সমস্যা কই? আসলেও নিচের লুপটাতে আসলে কোন কিছু ভুল নেই

কিন্তু মজার বিষয় হল যে একই দিনে যদি দুইটা পোস্ট লেখা হয়, তাহলে the_date() শুধুমাত্র একটি পোস্টে (একই তারিখের সর্বশেষ পোস্ট) ডেট ডিসপ্লে করবে। একই তারিখের বাকি পোস্ট গুলোতে the_date() ফাংশনের কোন আউটপুট থাকবে না। এই সমস্যা এড়ানোর জন্য আরেকটা চমৎকার ওয়ার্ক-অ্যারাউন্ড আছে, সেটা হল the_date() এর বদলে the_time() ফাংশন ব্যবহার করা। আমরা আমাদের উপরের লুপটাকে নিচের মত করে লিখতে পারি

এবার আপনি দেখবেন যে সব পোস্টেই ঠিক মত তারিখ দেখাচ্ছে, সেটা একই তারিখের অনেকগুলো পোস্ট হোক বা না হোক।

আপনি যদি চান যে ডেট ফরম্যাটে “F j, Y” এর বদলে ইউজারের নিজের দেয়া ডেট ফরম্যাট সেটিংস ব্যবহার করা হবে তাহলে আপনি লিখতে পারেন নিচের মত

the_time( get_option( ‘date_format’ ) ); // এই টিপসের জন্য বাপ্পি কে ধন্যবাদ

আশাকরি এই আর্টিকেলটিও আপনাদের ভালো লেগেছে, তাও মন্তব্যে জানালে খুশি হব।

ওয়ার্ডপ্রেস ট্যাক্সনমিতে মেটাবক্স সুবিধা যোগ করা

ওয়ার্ডপ্রেস ট্যাক্সনমিতে মেটাবক্স সুবিধা যোগ করা

ওয়ার্ডপ্রেসের ট্যাক্সনমিতে ডিফল্ট ভাবে মেটাবক্স দেখানোর কোন সুবিধা নেই, কিন্তু মজার ব্যাপার হল ওয়ার্ডপ্রেস কোডিং স্ট্রাকচার এমন ভাবে করা যাতে আমরা নিজেরা ডাটাবেজে আলাদা টেবিল দিয়ে সহজে কাজটা সেরে নিতে পারি 🙂

স্পেসিফিক অবজেক্ট গুলো তে মেটা যোগ করার জন্যে ওয়ার্ডপ্রেস এ add_metadata নামে একটা ফাংশন আছে আমরা ওটা দিয়ে কাজ করব 🙂

চলুন ফাংশনটা একবার দেখে নিই https://github.com/WordPress/WordPress/blob/master/wp-includes/meta.php#L29

এই পেজের ৩৬ নাম্বার লাইনে দেখুন যে _get_meta_table নামে একটা ফাংশন দিয়ে মেটা টেবিল টাও নেওয়া হয়েছে, ফাংশন টা ওই পেজের ১১০৭ নাম্বার লাইনে আছে।

এই ফাংশনে একটু খেয়াল করলে বুঝা যাবে যে মেটা টেবিল করার আগে টেবিল নেমের সাফিক্স অবশ্যই meta হতে হবে এবং ওটা $wpdb অবজেক্ট এর সাথে সেট করে দিতে হবে। আমাদের ট্যাক্সনমি মেটা টেবিলের নাম আমরা taxonomymeta ই দিচ্ছি।  তাহলে চলুন আমরা ছোট একটা প্লাগিন বালিয়ে ফেলি যেটা একটিভ করলে taxonomymeta টেবিল টা ওয়ার্ডপ্রেস ডাটাবেজে যোগ হয়ে যাবে আর  $wpdb অবজেক্টের সাথে taxonomymeta নাম টা পেজ ইনিশিয়েট এর সময় সেট হয়ে যাবে। taxonomymeta টেবিলের কলাম গুলো হবে অন্যান্য মেটা টেবিল ( পোস্ট, ইউজার, কমেন্ট ইত্যাদি )  কলাম গুলোর মতই, যেমন ঃ  meta_id, taxonomy_id, meta_key, meta_value.

প্লাগিন এক্টিভেশনের সময় আমরা টেবিল টা তৈরি করব আর init হুকে আমরা $wpdb তে ট্যাক্সনমি টেবিলের নাম টা বলে দিব।

এবার মেটাডাটা গুলা সেভ, আপডেট, ডিলিট করার জন্যে ফাংশন গুলা লিখে ফেলব।

এখন ট্যাক্সনমিতে আমরা মেটা ফর্ম ফিল্ড যোগ ও তা সেভ করব।  ট্যাক্সনমি মেটা ফর্ম  ফিল্ড যোগ ও সেভ  করার জন্যে ওয়ার্ডপ্রেসের একশন হুক আছে। ধরুন আমাদের ট্যাক্সনমি নাম txname তাহলেঃ

একটা উদাহরণ দিলে ব্যাপার টা আরও ক্লিয়ার হবে ঃ ধরুন আমরা নির্দিষ্ট নাম্বার এর একটা রেঞ্জ ফিল্ড দিব তাহলেঃ

ফর্ম ফিল্ড এড করা আর এডিট করার html ভিন্ন এইজন্যে আলাদা ফাংশন করতে হয়েছে কিন্তু সেভ বা আপডেট  করার জন্যে আমরা একটা ফাংশন ই ব্যাবহার করেছি 🙂

এখন আপনি চাইলে যেকোনো স্থানে ট্যাক্সনমির মেটা ডাটা ব্যবহার করতে পারেন, যেমন আমরা যদি রেঞ্জ ফিল্ড টার ডাটা ব্যবহার করতে চাই তাহলে get_term_meta(TERM_ID, ‘numrange’, TRUE); দিয়ে রেঞ্জ ফিল্ড এর ডাটা পাব।  তবে যেহেতু  get_term_meta আমাদের নিজেদের করা ফাংশন তাই ওটা ব্যবহারের আগে ফাংশন টা exists আছে কিনা তা চেক করে ব্যবহার উচিত 🙂

ব্রাউজারের ক্যাশিং বাড়িয়ে দিয়ে ওয়ার্ডপ্রেস সাইট দ্রুত লোড করুন

leverage-browser-cache

কোন ওয়েবসাইটের পেজ স্পিড গুগল পেজ স্পিড এনালাইজার দিয়ে চেক করলে “Leverage browser caching” বা ব্রাউজারে ক্যাশিং করে রাখার সুবিধার কথা বলে।

আজ আমরা দেখব কোন ওয়ার্ডপ্রেস সাইটের স্ট্যাটিক কন্টেন্ট যেমন ইমেজ, জাভাস্ক্রিপ্ট, সি, এস, এস ইত্যাদি  ব্রাউজারে ক্যাশিং করে রেখে কিভাবে কোন পেজের লোডিং স্পিড বাড়ানো যায় 🙂

আপনার সার্ভার যদি এপাচি সার্ভার হয় এবং “mod_expires” ডাইরেক্টিভ এনাবল করা থাকে তবে আপনি Expires HTTP header এর ম্যাক্সিমাম টাইম সেট করে দিয়ে কাজ টা সেরে ফেলতে পারেন।

এই টাইম টা আমরা .htaccess ফাইলে সেট করে দিব আমাদের সাইটে ব্যবহার করা বিভিন্ন কন্টেন্ট এর টাইপ অনুযায়ী এভাবেঃ

কিন্তু ধরুন কোন কারণে আপনি বা আপনার ক্লায়েন্ট যদি প্লাগিন থেকে ওয়ার্ডপ্রেসের রিরাইট রুল ফ্লাশ করে বা পারমালিঙ্ক সেটিং অফ করে দেয় থেকে তখন কিন্তু এই কন্টেন্ট মুছে যেতে পারে এই জন্যে আপনাকে এই সেটিংসটা ওয়ার্ডপ্রেসের .htaccess ফাইলের # BEGIN WordPress এবং # END WordPress এই comment wrapper এর বাইরে রাখতে হবে, তো ব্রাউজার ক্যাশ বাড়িয়ে নিন  🙂

ওয়ার্ডপ্রেস এডিটরে কাস্টম বাটন যোগ করা

এই আর্টিকেলে আমরা কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেস এডিটরে কাস্টম বাটন যোগ করা যায় তা দেখব 🙂

আমরা শর্টকোড বানানো শিখে ফেললাম এখন আমরা শুধু [[RandomQuote]] লিখলেই  আমাদের র‍্যান্ডম কোটেশন প্রিন্ট করে দেখায়, এখন ধরুন আমরা যদি ওয়ার্ডপ্রেস এডিটরে র‍্যান্ডম কোটেশন প্রিন্ট করার একটা বাটন যোগ করি যাতে ক্লিক করলে এডিটরে [[RandomQuote]] শর্টকোডটি  বসে যাবে তাহলে কাজটা আরও মজার ও সহজ হবে 🙂

চলুন শুরু করা যাক ঃ

প্রথমে আমাদের থিমে editor-button নামে একটা ডাইরেক্টরি করি এবং একটা JavaScript ফাইল তৈরি করি, নাম দিই ধরুন my-editor-button.js এখন ওই ফাইলে একটা সেলফ ইনভোক ফাংশন লিখিঃ

এবার TinyMCE এর একটা প্লাগিন বানাই ও প্লাগিন ম্যানাজার এ আমাদের প্লাগিনটা যোগ করে দিই, ডিক্লারেশন হবে এই রকমঃ

প্লাগিনে আমরা ২ টা ফাংশন ব্যবহার করব একটা init আরেকটা getInfo।

init বা ইনিশিয়েট ফাংশন টা এই প্লাগিন টা লোড হবার সাথে সাথে রান করবে, এখানে আমরা ওই  RandomQuoteButton এর বাটন নাম, টাইটেল, ইত্যাদি ডিফাইন করব এবং ওই বাটনে ক্লিক করলে কি হবে তা বলে দিব, আর getInfo তে প্লাগিন ডেভেলপার এর ইনফরমেশন থাকবে 🙂

init ফাংশনটাতে ২ টা প্যারামিটার থাকবে যা দিয়ে আমরা এডিটরের কিছু ডাটা ব্যবহার করতে পারব, চলুন কোড টা দেখিঃ

এবার getInfo তে নিজের নাম সাইট এড্রেস দিয়ে দিন ঃ

তো পুরা কোড টা হবে এমনঃ

এবার images নামে একটা ডাইরেক্টরি করে 20px বাই  20px  এর একটা ইমেজ বা আইকন রাখুন যা আমাদের এডিটরে দেখাবে, এই প্লাগিন এর জাভাস্ক্রিপ্ট ফাইলটা যে ডাইরেক্টরিতে থাকবে ওই ডাইরেক্টরির মধ্যে images ডাইরেক্টরি টা হবে। যেমন আমাদের এই জাভাস্ক্রিপ্ট ফাইল টা editor-button ডাইরেক্টরি তে আছে তো ইমেজ টা হবে editor-button/images এ

এবার functions.php ফাইলে এই জাভাস্ক্রিপ্ট ফাইল ও বাটন ওয়ার্ডপ্রেসের এডিটরে দেখানর জন্যে রেজিস্টার করে দিতে হবে, তো প্রথমে আমরা জাভাস্ক্রিপ্ট ফাইল টা যোগ করিঃ

এবার বাটন টা যোগ করিঃ

এবার ওয়ার্ডপ্রেস init হুকে জাভাস্ক্রিপ্ট ও বাটন টা যোগকরে দিই ঃ

পুরা কোড হবে ঃ

স্যাম্পল ফাইল ডাউনলোড করে নিন

আর আপনি যদি প্লাগিন হিসেবে ব্যবহার  করতে চান তখন WordPress প্লাগিন ডেভেলপমেন্ট এর যেমনঃ

স্টেপ গুলো ফলো করে প্লাগিন বানিয়ে তৈরি করে ফেলতে পারেন শুধু মনে রাখতে হবে যে প্লাগিন ফাইল যোগ করার সময় get_template_directory_uri() এর স্থানে plugin_url ব্যবহার করতে হবে।

একসাথে অনেক গুলো বাটনের জন্যে আপনি একই জাভাস্ক্রিপ্ট ফাইলে বাটন ও কমান্ড লিখে দিলেই হয়ে যাবে আলাদা জাভাস্ক্রিপ্ট ফাইল বানানোর দরকার পরবে না, আর php ফাইলে বাটন টা পুশ করে দিলেই কেল্লাফতে  🙂

ওয়ার্ডপ্রেস শর্টকোড ১০১ – পর্ব এক

Blue_binary_code_1600_1200

এই তিন পর্বের আর্টিকেলে আমরা ওয়ার্ডপ্রেসের শর্টকোড নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব। আমরা দেখবো কিভাবে শর্টকোড লিখতে হয়, শর্টকোডে কিভাবে আরগুমেন্ট/প্যারামিটার কাজ করতে হয়, কিভাবে নেস্টেড শর্টকোড লিখতে হয়, কিভাবে শর্টকোড ট্যাগের মাঝে লেখা কনটেন্ট ব্যবহার করতে হয়। সবশেষে আমরা দেখবো কিভাবে আমরা শর্টকোডগুলো ওয়ার্ডপ্রেসের ভিজ্যুয়াল এডিটরে বাটন হিসেবে যোগ করা যায় এবং কিভাবে শর্টকোডের ব্যবহার আরও ইউজার ফ্রেন্ডলি করা যায় 🙂

ওয়ার্ডপ্রেসের শর্টকোড মূলত একধরনের মিনি প্লাগইন যেটা দিয়ে থিম/প্লাগইন ডেভেলপার রা সহজেই লেখককে তার আর্টিকেলে বিভিন্ন ধরনের কনটেন্ট যোগ করার সুযোগ করে দেন। শর্টকোড তৈরী করা এবং ব্যবহার করা সহজ বলে ওয়ার্ডপ্রেস কমিউনিটিতে শর্টকোড ব্যপক জনপ্রিয়। শর্টকোড মূলত কয়েকভাবে ভাবে লেখা যায়। ধরুন আপনার শর্টকোডের নাম MyShortcode

১. শুধু প্যারামিটার সহ বা কোন প্যারামিটার ছাড়া শর্টকোড, যেমন

[MyShortcode/] – কোন প্যারামিটার ছাড়া শর্টকোড
[MyShortcode param1 = “Some Data” param2 = “Other Data” /] – প্যারামিটার সহ শর্টকোড

২. কনটেন্ট সহ শর্টকোড, এখানে কনটেন্ট দুই ধরনের হতে পারে যেমন, টেক্সট কনটেন্ট সহ শর্টকোড

অথবা নেস্টেড শর্টকোড (Nested Shortcode) – অর্থাৎ একটি শর্টকোডের মাঝে আরেকটি শর্টকোড

চলুন এখন আমরা দেখি কিভাবে ডেভেলপার হিসেবে আমরা ওয়ার্ডপ্রেস ব্যবহারকারীদের জন্য এসব শর্টকোড ডেভেলপ করব।

প্যারামিটার ছাড়া শর্টকোড তৈরী করা

এধরনের শর্ট কোড লেখা খুব সহজ। আপনার থিমের functions.php ফাইলে নিচের মত করে একটা শর্টকোড লিখে ফেলুন। এই শর্টকোডের কাজ হবে আপনার ওয়ার্ডপ্রেস ব্লগের টাইটেল দেখানো। মনে রাখবেন, শর্টকোড থেকে সবসময় আউটপুট রিটার্ন দিতে হয়, ডিরেক্ট ইকো করতে হয় না।

উপরের কোডে খেয়াল করলে দেখবেন যে একটা শর্টকোড লিখতে হলে দুইটি কাজ করতে হয়, প্রথমে একটি ফাংশন লেখা লাগে যেটা শর্টকোডের কলব্যাক ফাংশন হিসেবে কাজ করবে। এই ফাংশনটিই শর্টকোডের প্রান। কেউ তার কনটেন্টে শর্টকোড লিখলে ওয়ার্ডপ্রেস ভিতরে ভিতরে এই ফাংশনটি কল করবে। এর পরে এই ফাংশনটিকে শর্টকোডের সাথে রেজিস্টার করে দেয়া লাগে, যা আমরা করেছি add_shortcode() এর সাহায্যে। add_shortcode() এর প্রথম প্যারামিটার হল আমাদের শর্টকোডের নাম, আর দ্বিতীয় প্যারামিটার হল আগে লেখা শর্টকোডের ফাংশনটির নাম। এই শর্টকোড ব্যবহার করতে হলে আমাদের ওয়ার্ডপ্রেস এডিটরে [MyBlogTitle] লিখলেই হবে – আউটপুট হিসেবে আপনার ব্লগ পোস্টের কনটেন্টে আপনি দেখতে পারবেন আপনার ওয়ার্ডপ্রেস সাইটের টাইটেল।

শর্টকোড থেকে লাইভ আউটপুট – এই ব্লগের টাইটেল হল [MyBlogTitle]

চলুন আমরা যা শিখলাম সেটা ব্যবহার করে আমরা আরেকটা চমৎকার শর্টকোড লিখে ফেলি। এই শর্টকোডের কাজ হবে “পল গ্রাহাম” এর বা “জোয়েল অন সফটওয়্যার” থেকে একটা র‍্যান্ডম কোটেশন প্রিন্ট করা। এজন্য আমরা iheartquotes.com এর কোটেশন এপিআই ব্যবহার করবো, wp_remote_get() ফাংশনের সাহায্যে । আমাদের শর্টকোডের নাম হবে [RandomQuote]। এর জন্য আগের মতই আপনার থিমের functions.php ফাইলে নিচের কোডটুকু পেস্ট করুন

চলুন লাইভ আউটপুট দেখি আমাদের এই শর্টকোডের 🙂

[RandomQuote]

উপরে দেখতে পাচ্ছেন যে “পল গ্রাহাম” এর বা “জোয়েল অন সফটওয়্যার” থেকে একটা র‍্যান্ডম কোটেশন প্রিন্ট হয়েছে।

প্যারামিটার ওয়ালা শর্টকোড তৈরী করা

চলুন এবার আমরা দেখি কিভাবে প্যারামিটার সহ শর্টকোড লিখতে হয়। এরজন্য আমরা নতুন একটা শর্টকোড লিখবো যার কাজ হবে ইনপুট হিসেবে কোন স্থানের ল্যাটিচিউড এবং লঙ্গিচিউড নেয়া এবং গুগল ম্যাপে সেটা দেখানো। আমাদের শর্টকোডের নামে হবে [GoogleMap]। এজন্য নিচের কোড functions.php ফাইলে পেস্ট করুন

উপরের কোডে খেয়াল করুন কিভাবে আমরা আমাদের শর্টকোড ফাংশনে আমরা extract() ফাংশনটি ব্যবহার করেছি। এই ফাংশনের কাজ হল কোন অ্যারের কী গুলো কে সেই নামের ভ্যারিয়েবলে এক্সট্রাক্ট করা। এছাড়া shortcode_atts() ফাংশনে যেই অ্যারে টি আমরা পাঠিয়েছি, আমাদের শর্টকোডেও সেই অ্যারের কি গুলোর নামে প্যারামিটার পাঠানো যাবে। যেমন উপরের উদাহরণে এই কি গুলো হল lat, lon, zoom, width এবং height। আর কেউ যদি এই প্যারামিটারের কোনটি বাদ দেয় বা কোনটাই না দেয় তাহলে তাদের ডিফল্ট ভ্যালু ব্যবহার হবে। আমাদের এই অ্যারেতে বলা হয়েছে যে ডিফল্ট হিসেবে ল্যাটিচিউড ২৩.৭ এবং লঙ্গিচিউড ৯০.৩৭৫০, যা আসলে ঢাকার কো-অর্ডিনেট – পাশাপাশি আরও কিছু ভ্যারিয়েবলের ডিফল্ট ভ্যালু দেয়া আছে, যেমন zoom=12, width=600 এবং height=400। এখন কেউ যদি তার পোস্ট বা পেজের কনটেন্টে লেখে শুধু [GoogleCode] তাহলে তার আউটপুট আসবে নিচের মত

ডিফল্ট শর্টকোড [GoogleCode] এর আউটপুট
[GoogleMap]

আমরা যদি অন্যকোন স্থানের, যেমন ধরুন এরিয়া ৫১ এর ম্যাপ দেখতে চাই, তাহলে আমরা লিখতে পারি [GoogleMap lat= “37.2350” lon= “-115.8111” /]

এরিয়া ৫১ এর গুগল ম্যাপ
[GoogleMap lat= ‘37.2350’ lon= ‘-115.8111’ /]

মজা না? আজ এ পর্যন্তই থাকুক। এর পরের পর্বে আমরা আলোচনা করব কিভাবে শর্টকোডের কনটেন্ট এবং নেস্টেড শর্টকোড ব্যবহার করা যায়। আশাকরি মন্তব্যে জানাবেন কেমন লাগলো আজকের এই আর্টিকেলটি 🙂

ওয়ার্ডপ্রেসে ফোনেটিক বাংলায় লেখার সুবিধা যোগ করব কিভাবে

Screen Shot 2014-07-17 at 4.03.12 AM

ওয়ার্ডপ্রেসে ফোনেটিক বাংলায় লেখার সুবিধা যোগ করা এখন খুবই সহজ। এজন্য প্রথমেই নিচের ইউআরএল থেকে bnkb.phonetic.min.js ফাইলটি নামিয়ে আপনার থিমের js ফোল্ডারে রাখুন।

http://scripts.ofhas.in/bangla/bnkb.phonetic.min.js

এবার আপনার থিমের functions.php ফাইলে নিচের কোডটুকু যোগ করে দিন।

ব্যাস, হয়ে গেল ফোনেটিক বাংলায় লেখার সুবিধা। এবার ওয়ার্ডপ্রেস পোস্ট বা পেজের টেক্সট এডিটরে গিয়ে Text মোডে “বাংলা” বাটনের উপরে ক্লিক করলেই সরাসরি ওয়ার্ডপ্রেস এডিটরেই ফোনেটিক বাংলায় লিখতে পারবেন 🙂

আশাকরি পোস্টটি আপনাদের ভালো লেগেছে। তাও মন্তব্যে জানালে খুশি হব অনেক। সবার জন্য শুভকামনা রইলো

কিভাবে ওয়ার্ডপ্রেসে নিজের থিমে রিডাক্স ফ্রেমওয়ার্ক যোগ করব?

Screen Shot 2014-07-16 at 10.14.36 PM
ওয়ার্ডপ্রেসের যতগুলো অ্যাডমিন প্যানেল বা অপশন ফ্রেমওয়ার্ক আছে তাদের মাঝে রিডাক্স অন্যতম। অনেকগুলো চমৎকার ফিচার, প্রচুর ফিল্ডের সমারোহ এবং সহজ ব্যবহারোপযোগিতার কারনে রিডাক্স খুব দ্রুতই ওয়ার্ডপ্রেস থিম ডেভেলপার দের দৃষ্টি আকর্ষন করতে সক্ষম হয়েছে। এছাড়াও রিডাক্সে ডেভেলপাররা ক্রমাগত এটাকে আপডেট করে চলেছেন, যার ফলে আমরা মাঝেমাঝেই পাচ্ছি নিত্য নতুন ফিচার। আজকের এই আর্টিকেলে আমি দেখাবো কিভাবে আমরা আমাদের থিমে এই রিডাক্স ফ্রেমওয়ার্ক দিয়ে তৈরী অপশন প্যানেল যোগ করব

১. এজন্য প্রথমেই https://github.com/ReduxFramework/ReduxFramework/ এখানে ডানদিকের নিচে গিয়ে “Download zip” বাটনে ক্লিক করে রিডাক্স ফ্রেমওয়ার্ক ডাউনলোড করে নিন

২. ডাউনলোড করা জিপ ফাইলটি আনজিপ/এক্সট্রাক্ট করলে redux-framework-master নামে একটা ফোল্ডার পাবেন। সেটা ওপেন করে একমাত্র ReduxCore এবং sample নামের ফোল্ডার দুটো রাখুন, আর class.redux-plugin.php, index.php, license.txt, redux-framework.php নামের ফাইলগুলো রেখে বাকি সবকিছু ডিলেট করে দিন। ডিলেট করার পরে redux-framework-master ফোল্ডার এর কনটেন্ট হবে নিচের মত

Screen Shot 2014-07-16 at 9.47.41 PM

৩. এবার আপনার থিমে libs নামে একটা ডিরেক্টরী তৈরী করে তার ভেতরে এই redux-framework-master ফোল্ডার পেস্ট করে দিন।

৪. এবার আপনার থিমের functions.php ফাইলে নিচের কোড টুকু যোগ করুন

৫. এবার আপনার থিম অ্যাক্টিভেট করে ওয়ার্ডপ্রেস এর অ্যাডমিন প্যানেলে আসলেই বামপাশে দেখবেন “Sample Options” নামে একটা মেনু চলে এসেছে, যা আসলে রিডাক্সের স্যাম্পল ফাইল টির আউটপুট।

Screen Shot 2014-07-16 at 9.58.57 PM

ব্যাস, আমাদের থিমে রিডাক্স ফ্রেমওয়ার্ক যোগ করা শেষ। একদম সহজ, তাই না? এখন আপনি sample-config.php ফাইলটি স্টাডি করে দেখতে পারেন কিভাবে বিভিন্ন ধরনের ফিল্ড যোগ করা হয়েছে। লাইন নম্বর ২৩৯ থেকে এই সেকশন এবং ফিল্ড গুলোর ডেফিনিশন শুরু হয়েছে। এখন একটা বিষয় খুবই জরুরী, আর সেটা হল এই যে আমাদের থিমের ইউজার রা রিডাক্সের সাহায্যে বিভিন্ন ডেটা ইনপুট দিবে – আমরা সেগুলো থিমে ব্যবহার করব কিভাবে। এর জন্য আমাদের দেখতে হবে ১৫৩৫ নম্বর লাইনে (বর্তমান আপডেট অনুযায়ী) এই লাইনটি আছে

এখানে আপনি আপনার পছন্দ মতো ভ্যারিয়েবলের নাম লিখতে পারবেন। যেমন আপনার থিমের নাম যদি হয় FlyHigh তাহলে আপনি লিখতে পারেন

এটা করা হয়ে গেলে আপনার থিমের ফাইলে সবার উপরে এই লাইনটি লিখবেন

এর পর থেকে রিডাক্সের যেকোন ফিল্ডের ডেটা আপনি অ্যাক্সেস করতে পারবেন $flyhigh[‘fieldid’] এইভাবে। ফিল্ডের আইডি কিভাবে লিখতে হয় এটা জানতে হলে আপনি স্যাম্পল কনফিগ ফাইলে অনেক উদাহরণ পাবেন, যেমন ধরুন একটা ফিল্ডের ডেফিনিশন হল

উপরের উদাহরণে ফিল্ডের আইডি হল my_text_field, আর এই ফিল্ডের ভ্যালু পেতে চাইলে আমাদের লিখতে হবে $flyhigh[‘my_text_field’] । আরেকটা জিনিস, সেটা হল যে “Sample Options” নামের মেনুর নাম পরিবর্তন করতে চাইলে নিচের লাইনটি খুঁজে বের করে আপনার পছন্দ মত মেনু নাম দিন

এই স্যাম্পল ফাইলটি আপনার জানার সুবিধার্থে রিডাক্স টিম করে দিয়েছে। এই ফাইলে পরিবর্তন না করে বরং একই ফোল্ডারে দেখবেন barebones-config.php নামে আরেকটা ফাইল রয়েছে, যেটাতে শুধু যেটুকু দরকার সেটুকুই কোড আছে। আপনি সেই ফাইলটি আপনার থিমের কোথাও কপি করে নিয়ে আপনার থিমের জন্য নিজের মত করে অ্যাডমিন প্যানেল বানাতে পারবেন।

আশাকরি আর্টিকেলটি আপনাদের ভালো লেগেছে। তারপরেও মন্তব্যে জানালে খুশি হব 🙂

কুইক টিপস ০১: ওয়ার্ডপ্রেসে ইমেজের ইউআরএল সিডিএনের ইউআরএল দিয়ে রিপ্লেস করা

কোন প্লাগইন ব্যবহার না করেই ওয়ার্ডপ্রেসের পোস্ট এবং পেজের ইমেজের ইউআরএল দিয়ে রিপ্লেস করে দেয়া যায় খুব সহজেই। তবে অবশ্যই আগে থেকে সিডিএন কনফিগার করে রাখা লাগবে Pull From Origin স্টাইলে। এজন্য নিচের ফাংশনটি আপনার functions.php ফাইলে পেস্ট করে দিন।

এই ফাংশনটি আপনার ওয়ার্ডপ্রেসের ইমেজ ইউআরএলের “uploads/” অংশটুকু পর্যন্ত ফাংশনে উল্লেখ করা সিডিএন ইউআরএল দিয়ে রিপ্লেস করে দিবে। এর ফলে আপনার পোস্টের কোন ইমেজের ইউআরএল যদি হয় http://my.wp.blog/wp-content/uploads/2014/05/image.jpg এবং CDN URL  যদি হয় http://my.cdn.url তাহলে পরিবর্তিত ইউআরএল টি হবে http://my.cdn.url/wp-content/uploads/2014/05/image.jpg

আশাকরি টিপসটি অনেকরই কাজে লাগবে 🙂